রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:০৬ পূর্বাহ্ন

পঞ্চসার ইউপি চেয়ারম্যানের মিথ্যা মামলার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

রিপোর্টারের নাম / ৮৩ বার
আপডেট সময় :: রবিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১০:৫৬ পূর্বাহ্ন

 

‌মোঃ‌লিটন মাহমুদ মুন্সীগঞ্জঃ
গোলাম মোস্তফার বিরুদ্ধে মামলার দায় নিতে চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সাজ্জাদ হোসেন ও জনি। শনিবার দুপুরে মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের শফিউদ্দিন মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলন করেন। তাদের দাবী পঞ্চসার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফার বিরুদ্ধে যে ৪টি মামলা হয়েছে তা তার মানহানি করার জন্যই করা হয়েছে।
সাজ্জাদ হোসেন, মো: জনি ও মো: মোশারফ হোসেন মেম্বার তিনজনেই দাবী করেন দুটি মিল তারা কয়েক বছর পূর্বে চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফার কাছ থেকে ভাড়া নিয়ে চালাচ্ছেন। সংবাদ সম্মেলনে অকপটে স্বীকার করেন এই আয়রন করা কারখানায় অবৈধ কারেন্টজাল আয়রন করা হয়। কিন্তু এটা চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা জানেন না ও তিনি কারখানাটি চালান না। তাকে না জানিয়েই অবৈধ কারেন্টজালের ব্যবসা করেন বলে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বীকার করেন।
সংবাদ সম্মেলনে সাজ্জাদ হোসেন লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করে বলেন, পঞ্চসার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফার বিরুদ্ধে গত ২৮ আগস্ট ২টি মামলা যাহার নাম্বার ৫৪/৫৫২ ও ৫৫/৫৫৩। ২৭শে আগস্ট পঞ্চসার ইউনিয়নের দুইটি জাল আয়রন কারখানায় নৌ পুলিশের বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। পরবর্তীতে আবারও গত ৬ই সেপ্টেম্বর দুটি কারখানায় অভিযান পরিচালনা করে নৌ পুলিশ। সেখানেও পঞ্চসার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাজী মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফাকে প্রধান আসামি করে দুইটি মামলা রুজু করানো হয়। ৭ই সেপ্টেম্বর। যাহার মামলার নাম্বার ১২/৫৭৩ ও ১৩/৫৭৪। পঞ্চসার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাজী মুহাম্মদ গোলাম মোস্তফা প্রকৃতপক্ষে এই দুটি ‘কারখানার সাথে তার কোন সম্পর্ক নেই বলে দাবী করেছেন সংবাদ সম্মেলন করতে আসা তিনজন ব্যবসায়ী সাজ্জাদ হোসেন, মোঃ জনি ও মোশারফ হোসেন মেম্বার।
সংবাদ সম্মেলনে আরো উল্লেখ করা হয় জিএম কর্পোরেশন নামে হাজী মো. গোলাম মোস্তফার আমদানি রপ্তানি কারক প্রতিষ্ঠান রয়েছে যার প্রধান কার্যালয় চক মোগলটুলি। কিন্তু এই নামে মুন্সীগঞ্জে কোন কারখানা নেই।

0Shares


এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com