বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:৫০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে চলন্ত পিকআপে আগুন   বজ্রযোগিনী ইউনিয়নে নৌকার প্রচারনায় ফয়সাল বিপ্লব গজারিয়ায় বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তির জন্য বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়   সিরাজদিখানে খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায়  মসজিদে মসজিদে দোয়া সিরাজদিখানে ইউপি নির্বাচনে ৬৬২ জন মনোনয়ন পত্র দাখিল সিরাজদিখানে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে যুবদলের বিক্ষোভ সমাবেশ ইউপি নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর বজ্রযোগিনী ইউনিয়নে আলোচনা সভা গজারিয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বসতঘরে আগুন ও ম্যাজিক জাল পুড়ে ছাই নিবার্চন থেকে সড়ে দাঁড়ালেন আক্তারুজ্জামান জীবন শ্রীনগরে আ‘লীগ সভাপতির বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ
নোটিশ

মুন্সীগঞ্জ সংবাদ - প্রকাশক ও সম্পাদক - মোহাম্মদ আলী রুবেল    +৯৭১৫৫৭৭৪৯৬৬৮ - সত্যের পথে নির্ভীক মোরা - আমরা সদাসর্বদা সত্য প্রচার করি

 

শ্রীনগর বাড়ৈখালি ইউনিয়নের মদনখালী সহ আশপাশের গ্রাম গুলো খাবারের সংকটে বানরের দখল

মুন্সীগঞ্জ সংবাদ ডেক্স / ১১৫ বার
আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২১

লিটন মাহমুদঃ
বন ও খাবারের উৎস কমে যাওয়ায় বানরের দল হানা দিচ্ছে ফসলি জমি ও মানুষের বাড়িঘরে,পথচারীদের হাত থেকেও খাবার ছিনিয়ে নিচ্ছে প্রাণীগুলো।
তবুও এদের প্রতি ভালোবাসা ও আগ্রহের কমতি নেই গ্রামবাসীর এমন দৃশ্য দেখা যায় মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার বাড়ৈখালি ইউনিয়নে । রাস্তা, বাড়ির উঠান, ছাদ, টিনেরচাল, গাছপালা সব জায়গায় বিচরণ করছে ছোট-বড় বানরের দল” কোনো দলে ২০টি কোনো দলে ৩০টি আবার কোনো দলে এর চেয়েও বেশি বানর রয়েছে।শ্রীনগরে  উপজেলার খাহ্রা ও মদনখালী গ্রামে শতবছর ধরে মানুষের সঙ্গে বসবাস করছে কয়েকশ বানরের দল। স্থানীয়দের কাছে বানরগুলো গ্রামের ঐতিহ্যের অংশ তাই বানরের গ্রাম বলেও সুপরিচিত। এসব বানর দেখতে দূর-দূরান্ত থেকেও ছুটে আসেন শত শত মানুষ।
গ্রামটির বেশির ভাগ অংশ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর”এখানে দীর্ঘদিন অবস্থান করছে বানর বর্তমানে বানরের সংখ্যা প্রায় ৫  হাজার। তবে দিন দিন বনজঙ্গল কমে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছে বানরগুলো,প্রতিনিয়ত খাবারের সন্ধানে ফসলি জমি ও মানুষের বাড়িঘরে হানা দিচ্ছে তারা। গাছের ফল থেকে শুরু করে বাড়িঘরের ভেতরে কোথাও কোনো খাবার রাখা যায় না,সুযোগ পেলেই বানরগুলা আসে নিয়া যায়।’
অন্যদিকে ক্রমশ কমেছে গাছপালা ও খাবারের উৎস। খাবার সংকটে বর্তমানে বেড়েই চলছে বানরের উৎপাতে সমস্যা এতটাই প্রকট যে, ঐতিহ্যের অংশ বানরের বিড়ম্বনায় অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। নিত্যপ্রয়োজনে চলাচল ও স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীদের যাতায়াত করতে হচ্ছে আক্রমণের ভয় নিয়ে।
 বানরের যন্ত্রণায় দিনের বেলা খাবার নিয়ে বাসায় আসা যায় না রাতে লুকিয়ে খাবার আনতে হয়। এলাকার গাছপালার সব ফল বানর খেয়ে ফেলে, বানরগুলোকে খাবারের ব্যবস্থা করতে হবে নয়তো বন বিভাগকে অন্য কোনো ব্যবস্থা নিতে হবে।সময়ের সঙ্গে বংশ বিস্তারে বেড়েছে বানরের সংখ্যা।
 আক্রমণের শিকার হচ্ছে ছোট-বড় অনেকে। ঘরে রাখা খাবার লুট, সবজি, ফলমূল খেয়ে বিনষ্ট আর গৃহপালিত পশুর ওপরও হামলা চালাচ্ছে প্রায়।
এ বিষয়ে মুন্সিগঞ্জ বন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবু তাহের জানান, গ্রাম দুটিতে বহু বছর ধরে বানর আছে। খাবার সংকটে বন্যপ্রাণীদের আক্রমণ বাড়ছে। এক্ষেত্রে প্রয়োজন অনুযায়ী সরকারিভাবে খাবার দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে,এরপরও অতিরিক্ত উপদ্রবকারী বানরগুলোকে প্রাকৃতিক বন ও সাফারি পার্কে পুনর্বাসনের উদ্যোগ নেওয়া হবে‘সরকারি বা বেসরকারিভাবে বানরগুলোর একটা গতি হোক এমনটাই প্রত্যাশা এলাকাবাসীর।


এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com